পদত্যাগের ঘোষণা ইতালির প্রধানমন্ত্রীর

পদত্যাগের ঘোষণা  ইতালির প্রধানমন্ত্রীর

নুসরাত কলি, বিবিসি অবলম্বনে : ইতালির সংবিধান সংশোধন প্রশ্নে গতকাল অনুষ্ঠিত হয়েছে গণভোট। আর এই গণভোটে হেরে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাত্তিও রেনজি। রোববার গভীর রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে পদত্যাগের ঘোষণা দেন তিনি।

রেনজি সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, ভোটের ফল মেনে নিয়েছি। এখন বিরোধীদের একটি স্পষ্ট প্রস্তাব নিয়ে সামনে আসতে হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে রেনজি আরও বলেন, সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে তিনি পদত্যাগের বিষয়টি আনুষ্ঠানিকভাবে তুলবেন এবং পরে প্রেসিডেন্টের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন।

গতকাল দেশটিতে গণভোট অনুষ্ঠিত হয়। এতে রেনজির পক্ষে ভোট পরে ৪০ ভাগ এবং তাঁর বিপক্ষে ভোট পরে ৬০ ভাগ।

রেনজি বলেন, ইতালিকে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় আরও এগিয়ে আসতে হবে। না হয় বর্তমান প্রেক্ষাপটে আমলাতন্ত্রের দৌরাত্ম্যকে কমিয়ে আনা সম্ভব হবেনা। যেটা এই গণভোটের মাধ্যমে ব্যাপকভাবে প্রতিফলিত হয়েছে।

অর্থনৈতিক সংস্কারের ধীরগতি নিয়ে সমালোচনার মুখে এনরিকো লেত্তার পদত্যাগের পর ২০১৪ সালের ফেব্রয়ারিতে ইতালির প্রধানমন্ত্রী হন ৩৯ বছর বয়সী মাত্তিও রেনজি। ইতালির ইতিহাসে তিনিই সবচেয়ে কম বয়সে সরকারপ্রধানের দায়িত্বে এসেছিলেন।

এদিকে ইতালির গণভোটের ফল ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতাদেরও অস্বস্তিতে ফেলেছে। ‘না’ এর জয়কে দেখা হচ্ছে জনগণের প্রতিষ্ঠানবিরোধী মনোভাবের নির্দেশক হিসেবে।

অভিবাসনবিরোধী নর্দার্ন লিগের নেতা মাত্তিও সালভিনি এই ভোটের ফলকে বর্ণনা করেছেন ‘বিশ্বের তিন-চতুর্থাংশের পরাক্রমের বিরুদ্ধে জনগণের বিজয়’ হিসেবে।

 

এসবিসি/ এনকে/কেএ