বিফল বসন্ত

বিফল বসন্ত

এই বসন্তে
তুমি চলে গেলে দূরে

দূরে বহু দূরে

কী হবে এ ফুল ফাগুনের উড়াল বসন্তে যদি তুমি নেই পাশে!
এই আকাশ আলোক,পাখীদের গান, ভোরের শিশির,
ফুলেদের ফুটে ওঠা, দেখব কেমন করে তোমাকে ছাড়া!
কী হবে আমার এ বসন্তে!

 

তুমি নেই, তবু সব আছে, একথা ভাবলেই বুক ফেটে কান্না পায় কেন!
সব আছে, ধানমণ্ডির ঝিলের জলে তির তিরে ঢেউ, জলের ওপরে জল,
মানুষের প্রাতঃ ভ্রমন, ফেরার পথে দিনের বাজার।

ভোরে ঘুম ভেঙে জলতেষ্টা, আর কি যেন নেই কি যেন নেই ধু ধু করে বুক। ব্যালকোনিতে টবের ভেতর শিউলির গাছটা,
আর সেই চড়ুইগুলো গম খেতে আসে ঠিকঠাক।
16830716_10155086898703410_5898455616507504162_n শ্যামলীর মা এসে দুবেলা ঘর মোছে,
বাসন কোসন আর জমে না আগের মত অকারণে
আমিও আর অযথা রান্নায় ব্যস্ত হই না।
এসব বড় অপছন্দের ছিল তোমার,
হাত থেকে উলের কাটা ফেলে দিয়ে বলেছিলে ‘এসব কাজ করবে অন্য কেউ,
তুমি শুধু লিখবে যা মন চায়, আর কিছু না।’

আজ আবার খুলেছি আলমারী। খুলেছি স্মৃতির দেরাজ। দেয়ালের পাশে আমগাছটায় ডাকছে কোকিল।
ওগো তোমার ছায়াহীন আমি ঝরে যাব এই ফাল্গুন শেষে চৈত্রের তাপে।
এবসন্তে আর হবে না প্রণয়।

ফুল যদি নাই ফোটে বনে, প্রেম যদি নাই দিলে প্রাণে
বিফল বসন্ত কেন আসে তবু বিফল জীবনে?

লুতফুন নাহার লতা

২১ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ নিউইয়র্ক

এসবিসি/এসবি