সিরিয়ার পথে মার্কিন রণতরী

সিরিয়ার পথে মার্কিন রণতরী

এসবিসি ডেস্ক : উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক এবং ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে ক্রমবর্ধমান উদ্বেগের মধ্যেই কোরীয় উপসাগর অভিমুখে রণতরী মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির সেনাবাহিনীর আদেশে পাঠানো ওই রণতরীতে রয়েছে একটি বিমানবাহী জাহাজ এবং কয়েকটি যুদ্ধজাহাজ।

বিবিসি থেকে বলা হয়েছে, কৃষ্ণ সাগরের নভোরসি বন্দরে সরঞ্জাম সরবরাহ পাওয়ার পর রণতরি অ্যাডমিরাল গ্রিগোরোভিচ ভূমধ্যসাগরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে।  প্রশান্ত মহাসাগরের পশ্চিমে যাত্রা করা বাহিনী সেখানে তাদের পূর্ণ যুদ্ধ প্রস্তুতির অংশ হিসেবেই যাচ্ছে এখন। ওই অঞ্চলে উত্তর কোরিয়ার ক্রমাগত দায়িত্বহীন পারমাণবিক পরীক্ষা চালানো ও ক্ষেপণাস্ত্রের সংখ্যা বাড়িয়ে চলার মাধ্যমে যে ব্যাপক ঝুঁকি তৈরি হয়েছে, তা সামাল দিতেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে জানানো হয়েছে।

রাশিয়ার রণতরি পাঠানোর ঘটনায় পরবর্তী পদক্ষেপ কী হতে পারে, তাৎক্ষণিকভাবে তা জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেছে হোয়াইট হাউস। ফ্লোরিডায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মালিকানাধীন মার-এ-লাগো রিসোর্টে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় হোয়াইট হাউসের প্রেস সচিব শন স্পাইসার বলেন, প্রেসিডেন্ট ‘তাঁর পরবর্তী পদক্ষেপ জানাতে চান না।’ সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের ব্যাপারে ট্রাম্প প্রশাসনের অবস্থান সম্পর্কে এ সময় স্পাইসার বলেন, ‘প্রথম এবং প্রধানতম বিষয় হলো, প্রেসিডেন্ট আশা করেন, সিরিয়ার সরকার রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার না করার ব্যাপারে সম্পাদিত চুক্তি মেনে চলবে।’

গত সপ্তাহে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের যুক্তরাষ্ট্র সফরে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকে এই বিষয়টি বেশি প্রাধান্য পায়। এছাড়া কয়েকদিন আগেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, উত্তর কোরিয়ার পরমাণু হুমকি মোকাবেলায় একাই পদক্ষেপ নিতে পারে তার দেশ।

এসবিসি/এনকে