রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতীয় ঐক্য চায় বিএনপি

রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতীয় ঐক্য চায় বিএনপি

এসবিসি, কক্সবাজার : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, মিয়ানমারের নির্দয় শাসকগোষ্ঠী অমানবিক নিপীড়ন চালিয়ে প্রায় সাড়ে ৪ লাখ রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ঠেলে দিয়েছে। আজ সকালে জেলা বিএনপি অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে এখন দরকার জাতীয় ঐক্য। কিন্তু আওয়ামী লীগ এবং সরকারের পক্ষ থেকে বিএনপির জাতীয় ঐক্যের ডাকে সাড়া পাওয়া যায়নি। কুটনৈতিক তৎপরতার মধ্যদিয়ে এসব রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার সরকারকে বাধ্য করতে হবে।রোহিঙ্গা ইস্যুতে কোনও ‘দলীয় রাজনীতি’ না করে জাতীয় ঐক্যের মাধ্যমে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য আবারও সরকারের প্রতি আহ্বান জানান বিএনপি মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘অনেকে অনেক কথা বলছে, আমরা সেই কথা বলতে চাই না। নোবেল পুরষ্কারের কথা বলেছেন, অন্যান্য সুবিধার কথা বলছেন। আমরা বলতে চাই, আন্তরিকতা সাথে এই সমস্যার সমাধান করুন। বিভেদ না করে, বিভক্তি না এনে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে দেশের সকল অভ্যন্তরীণ শক্তিগুলোকে এক করে মিয়ানমারের চাপিয়ে দেয়া এই যে সংকট, এই সংকট মোকাবিলায় একটা জাতীয় ঐক্যের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করুন। এটাই হচ্ছে আমাদের আহবান।’

মিয়ানমারকে সমর্থনকারী রাশিয়া, চীন ও ভারতে বিশেষ দূত প্রেরণের পরামর্শ দিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘তাদেরকে (রাশিয়া, চীন, ভারত) পরিস্থিতি বুঝিয়ে এই সমস্যার দ্রুত সমাধানের জন্য সরকারের কূটনৈতিক তৎপরতা আরও বাড়ানো প্রয়োজন বলে আমরা মনে করি। আমরা এই কথা বলেছি, প্রয়োজনে প্রধানমন্ত্রীকে ভারত, চীন ও রাশিয়া যাওয়া উচিত, তারা যেন কোনও নেতিবাচক অবস্থান না নেন।’

গত মঙ্গলবার বিকেলে রোহিঙ্গাদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণের জন্য বিএনপি মহাসচিব কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে নিয়ে কক্সবাজার যান। তিনি উখিয়া ও টেকনাফের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো পরিদর্শন ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন। উখিয়ায় সেনাবাহিনীর ত্রাণ ভাণ্ডারে দলের পক্ষ থেকে দুই ট্রাক ত্রাণ সামগ্রীও দেন।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান এজেডএম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব মুজিবুর রহমান সরওয়ার, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম, মৎস্যজীবী বিষয়ক সম্পাদক লুৎফুর রহমান কাজল, কেন্দ্রীয় নেতা শরিফুল আলম, হারুনুর রশীদ হারুন,শহিদুল ইসলাম বাবুল, আমিরুজ্জামান খান শিমুল, শহিদুল ইসলাম বাবুল, জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক এড. শামীম আরা স্বপ্না প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এসবিসি/এসএএম/এসবি