এখন সচেতনতার লড়াই

এখন সচেতনতার লড়াই

এসবিসি ডেস্ক : মার্কিন টিভি তারকা জুলিয়া লুইস প্রাণঘাতী ব্রেস্ট ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রে তুমুল জনপ্রিয় কমেডি সিরিজ ‘ভিপ’, ‘ভিপ তারকা’ হিসেবে খ্যাতিমান ৫৬ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী।  এই মাসের শুরুর দিকে এ্যামি এ্যাওয়ার্ড পান জুলিয়া, অবশ্যই এটি প্রথমবারের মত নয়।  ভক্তদের নিখাদ ভালোবাসায় আরও একবার ঝলমল করে উঠল জীবনের আঙ্গিনা। সেই আলোকিত আঙ্গিনাতেই আঁধার হয়ে এলো কর্কট বিষ! টুইটারে জুলিয়া জানালেন, তার ক্যান্সার হয়েছে। ব্রেস্ট ক্যান্সার। তিনি খুব সহজ ভাষায় জানালেন, ‘প্রতি ৮ নারীর মধ্যে ১ জন স্তন-ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়। আজ আমি সেই একজন।’ বিবিসি

দু’লাইনে দুঃসংবাদটি জানিয়েই আশার আলো প্রজ্জলন করতে চেয়েছেন জুলিয়া। পরিবার ও বন্ধু-সুহৃদ মহলের আন্তরিক সাহচর্য ও সহমর্মিতাকে ভালো খবর হিসেবে উল্লেখ করেছেন। আর্থিক সঙ্গতির কথা উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, ‘আর এটা খারাপ খবর যে, সব নারী আমার মত ভাগ্যবান নয়।’

‘সুতরাং সব ধরণের ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে। বিশ্বজুড়ে সবার স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে হবে।’

‘ভিপ’ ছাড়াও দীর্ঘ কর্মজীবনে জুলিয়ার সাফল্যের স্মারক ‘সেটারডে নাইট লাইভ’ এবং ‘দ্য নিউ এডভেঞ্চারস অব ওল্ড ক্রিস্টিন এন্ড সেনফিল্ড।’

উল্লেখ্য, মহিলাদের স্তন ক্যান্সার এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ভয়াবহ, যাতে মৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশি। কাড়ি কাড়ি টাকা খরচ করেও লাভ হয় না, এই ক্যান্সারের প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি এখনও। তবে কিছু নিয়ম ও সতর্কতা মেনে চললে প্রাথমিক অবস্থায় স্তন ক্যান্সার নিরূপণ করা সম্ভব। প্রাথমিক অবস্থায় সনাক্ত করা গেলে সুস্থতার সম্ভাবনা বেড়ে যায় অনেক।

স্তন ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই এখন একটাই, তা হল সচেতনতা সৃষ্টি। বাংলাদেশের মত দেশে এই লড়াই অনেক বেশি জরুরি। জানতে হবে, জানাতে হবে। জুলিয়া লুইস সেই লড়াই জোরদার করার আহ্বান জানালেন।

এসবিসি/এসবি