ওবায়দুল সমীরের মুক্তিযুদ্ধের গল্প ‘কুড়িয়ে পাওয়া গ্রেনেড’

ওবায়দুল সমীরের মুক্তিযুদ্ধের গল্প ‘কুড়িয়ে পাওয়া গ্রেনেড’

এসবিসি ডেস্কঃ একুশের বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে ওবায়দুল সমীরের মুক্তিযুদ্ধের কিশোর গল্পের বই ‘কুড়িয়ে পাওয়া গ্রেনেড’। প্রকাশ করেছে শব্দশিল্প প্রকাশন। শিল্পী মোমিন উদ্দীন খালেদের প্রচ্ছদ ও ফারজানা পায়েলের অলংকরণে সম্পুর্ন চার রঙে এ বইটি প্রকাশিত হয়েছে। বইটি পাওয়া যাচ্ছে শিশু চত্বরের ৬৬৯/৬৭০ নম্বর শব্দশিল্প প্রকাশনের স্টলে। বইটির মূল্য রাখা হয়েছে ১৭০ টাকা।

পাঁচটি মুক্তিযুদ্ধের কিশোরগল্প দিয়ে সাজানো হয়েছে ‘কুড়িয়ে পাওয়া গ্রেনেড’ গ্রন্থটি। প্রতিটি গল্পই মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপটে রচিত।

গ্রন্থভূক্ত প্রথম গল্প “স্যালুট দাদাভাই” গল্পে মুক্তিযুদ্ধে দাদার নেতিবাচক ভূমিকার কথা জানতে পেরে আসিফের মনোবেদনা,  মুক্তিযুদ্ধের অনিবার্য স্লোগানকে উপজীব্য করে লেখা “জয় বাংলা” গল্পে কিশোর বালক চানমিয়ার আত্মদান এবং তৎসময়ের রাজাকার আলবদরের বিভিষিকার চিত্র ফুটে উঠেছে। পাখি শিকারের হাতিয়ার কিভাবে পিশাচ বধের হাতিয়ার হয়ে উঠা এবং সমবয়সি কিশোরির সম্ভ্রম বাঁচাতে নিজ জন্মদাতা রাজাকার পিতাকে হত্যার কাহিনি “গুলতি” গল্পটি। “মুক্তিচাচ্চুর স্মৃতিকথা” গল্পে এদেশের সম্মানিত ব্যক্তিদের রাজাকার আলবদরদের নির্যাতন, নিপীড়নের চিত্র ফুটিয়ে তুলেছেন নিপুন দক্ষতায়। একাত্তুরে জ্বালাময়ী স্লোগানে উদ্দীপ্ত হয়ে কিশোর নাজিমের বীরোচিত পাকহায়েনা প্রতিরোধের চিত্র চিত্রিত হয়েছে অসাধারন দক্ষতায় নামগল্প “কুড়িয়ে পাওয়া গ্রেনেড” গল্পে ।

কিশোর যোদ্ধাদের বীরোচিত প্রতিরোধ ও আত্মদান বর্তমান প্রজন্মকে দেশপ্রেম, মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল করে তুলবে। গ্রন্থভূক্ত গল্পগুলো ছোটদের মনোজগত ছুঁয়ে যাওয়ার পাশাপাশি বড়োদেরও ফের একাত্তরের চেতনায় শানিত করবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

গ্রন্থটির বহুল প্রচার কাম্য।

এসবিসি/এসবি